জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

মুসলিম মেয়েদের নামের ক্ষেত্রে জ বর্ণ দিয়ে তৈরি হওয়া মেয়েদের ইসলামিক নাম হলো খুবই ইউনিক। মেয়ে সন্তানের নাম রাখা নিয়ে নানান ধরনের সংকোচন আর দ্ধিধাহীনতা ভুগতে হয় অনেককে। তাদের দ্ধিধাহীনতা দূর করার লক্ষে আজকে নিয়ে আসলাম জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম এর বিশাল একটি তালিকা। যেখান থেকে আপনি আপনার মেয়ে সন্তানের জন্য যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে পারবেন এবং জ বর্ণ দিয়ে তৈরি হওয়া নামগুলো সম্পর্কে আরো ধারণা নিতে পারবেন। এখানে প্রায় অনেকগুলো নাম উল্লেখ করা হয়েছে। আশা করি পুরো পোস্টটি ধৈর্য সহকারে পড়লে নামের এই তালিকা থেকে যেকোনো একটি চমৎকার নাম সিলেক্ট করতে সক্ষম হবেন।

এখানে যতগুলো জ দিয়ে নাম রয়েছে, সবগুলোই বাঁচাইকৃত এবং নির্দ্ধিধায় আপনার মেয়েদের জন্য বা আত্মীয়দের কারো জন্য চয়েজ করতে পারেন। আমরা সাধারণত যখন কোনো নাম চয়েজ করতে যাই তখন আমাদের মাথায় কয়েকটা জিনিসকে সেট করে রাখা দরকার। এক হলো ইসলামিক নাম কি-না আর নামটি যদি ইসলামিক হয়, তাহলে এই ইসলামিক নামের অর্থ কী বা কি অর্থ বহন করছে। আমাদের বর্তমান গার্ডিয়ানদের মধ্যে একটি জিনিস লক্ষ্য করা যায় যে,তারা যখন তাদের মেয়ে সন্তান অথবা ছেলে সন্তানের নাম চয়েজ করতে যায়, তখন তারা আধুনিক কিছু পশ্চিমা নীতি গ্রহণ করে। যা একজন মুসলিম হিসেবে মোটেও কাম্য নয়। মেয়েদের অনেক আধুনিক মিষ্টি নাম রয়েছে তেমনি ছেলেদেরও আধুনিক নাম রয়েছে। সেখান থেকে একটি নাম পিক করেন। অন্যথায়, পুরুষ সাহাবীদের নাম থেকে অথবা মহিলা সাহাবীদের নাম থেকে নাম পিক করেন। এভাবে মেয়ে বা ছেলেদের ইসলামিক নামগুলো থেকে যেকোনো একটি নাম চয়েজ করা যায়। যদি জ বর্ণ দিয়ে নাম সিলেক্ট করতে চান অথবা ইতিমধ্যে কারো নাম জ দিয়ে আছে কিন্তু আপনি তার নামের অর্থটি জানতে চান, তাহলে পুরো পোস্টটি পড়ুন। এখানে সবগুলো জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেওয়া রয়েছে। আশা করি এখান থেকে যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে পারবেন অথবা জ দিয়ে সে মেয়ের নামের অর্থটি পেয়ে যাবেন। চলুন জানা যাক, জ বর্ণ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামগুলো অর্থসহ।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: পাঠকদের পড়ার সুবিধার্থে এবং শ্রুতিমধুর দেখতে  ২৫ টা নামের পর-পর জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের একটা সংক্ষিপ্ত ব্রেক এবং এভাবে ৫ টি ব্রেকের মাধ্যমে জ দিয়ে মেয়েদের প্রায় ১২৫ টির উপর ইসলামিক নামের তালিকা উল্লেখ করা হলো।

J – জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

তালিকা আকারে এখানে প্রায় ১২৫টির উপর ইসলামিক নাম রয়েছে। আর এখানে থাকা প্রত্যেকটি নাম হলো জ বর্ণ দিয়ে। সবগুলো নাম হলো ইসলামিক এবং মেয়েদের জন্য। তাই কোনো মেয়ের জন্য যদি ঠিক করেন যে নামটি রাখবেন জ বর্ণ দিয়ে ইসলামিক একটি নাম। তাহলে আজকের পোস্টটি আপনার সুবিধার্থে বেশ কাজে লাগবে। পুরো পোস্টটি পড়লে জ দিয়ে যেকোনো একটি সুন্দর মুসলিম অথবা ইসলামিক নাম চয়েজ করতে পারবেন। জ দিয়ে উল্লেখিত সবগুলো নাম হলো ইতিবাচক অর্থবহন কারী নাম। তাই মনোযোগ ও ধৈর্য সহকারে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন এবং  আশা করি আজকের পোস্ট থেকে সুন্দর ও ইসলামিক একটি নাম পিক করতে সক্ষম হবেন।

  • জোহরা‌  ‌=‌ ‌Johra = সুন্দর‌ ‌
  • জ্যাসমিন‌ ‌= Jesmin = একটি‌ ‌জুঁই‌ ‌ফুলের‌ ‌সুবাস‌ ‌
  • জামিলা‌ ‌= Jamila = সুন্দরী।‌ ‌
  • জায়রা‌ ‌= Jayra = একটি‌ ‌গোলাপের‌ ‌চমৎকার‌ ‌প্রকৃতি‌ ‌
  • জারা‌ ‌= Jara = একটি‌ ‌ফুলের‌ ‌মতো‌ ‌প্রকৃতির‌ ‌
  • জালসান‌ ‌= Jalsan = বাগান।‌ ‌
  • জালিলা‌ ‌= Jalila = একটি‌ ‌মেয়ে‌ ‌যে‌ ‌তার‌ ‌জীবনে‌ ‌অসাধারণ‌ ‌কাজ‌ ‌প্রকাশ‌ ‌করে‌ ‌
  • জাহান‌ ‌= Jahan = পৃথিবী।‌ ‌
  • জামীমা = Zameema =একধরণের লতার নাম
  • জিন্নাত= Zinnat = পাগলামী
  • জুনাইনাহ = Zunainah =ক্ষুদ্র বাগান
  • জাহানারা‌ ‌= Jahanara = একটি‌ ‌শক্তিশালী‌ ‌নারী‌ ‌যে‌ ‌বিশ্বের‌ ‌শাসন‌ ‌করার‌ ‌জন্য‌ ‌জন্মেছে‌ ‌
  • জাহিরা‌ ‌= Zahira = যে‌ ‌রাতে‌ ‌উজ্জ্বলভাবে‌ ‌জ্বলজ্বল‌ ‌করে‌ ‌
  • জাফেরা = Zafira =সাহায্যকারিণী
  • জামেরা = Zamera =কৃশকায়া / পাতলা
  • জাইফা = Zayfa = অতিথিনী
  • জাহেকা= Zeheka = হাসিন
  • যারীয = Zarim = অগ্নিদগ্ধ / প্রেমিকা
  • জাহিরা = Zahera = প্রকাশিত / প্রভাবশালী
  • জাবিয়া = Zabia = হরিণ
  • জরীফা = Zarifa = বুদ্ধিমতী / চালাক
  • জলীলা =Zalila = আশ্রয়স্থান / বৃক্ষে ঢাকা উদ্যান
  • জায়ীনা = Zayena= সাহায্যকারী
  • জফিরা = Zafira = উটের পিঠের ওপর
  • জুহরাহ = Zuhrah = সম্ভ্রান্ত স্ত্রী লোক

J বা জ দিয়ে অসংখ্য মেয়েদের নাম রয়েছে। কিন্তু সে অসংখ্য নামগুলো থেকে শুধু মাত্র ইসলামিক নামগুলো পৃথক রে একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছে এবং আজকের আর্টিকেলে তা প্রকাশ করা হয়েছে। এখানের প্রতিটি নাম হলো মুসলিম নাম। সুতরাং যদি জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম খুঁজে থাকেন, তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য আশীর্বাদ সরূপ। কেননা এখানে উল্লেখিত প্রতিটি নামই হলো ইসলামিক মেয়েদের নাম এবং সবগুলো নামের অর্থ ইতিবাচক। সেই প্রেক্ষিতে এই নামগুলো আপনি আপনার কণ্যা সন্তানের জন্য রাখতে পারেন। মেয়েদের ইসলামিক নামগুলো অবশ্যই ইতিবাচক অর্থবহ হতে হয় এবং একই সাথে সুন্দর নাম হতে হয়। সুতরাং নিম্নের নামগুলো পড়া চালিয়ে যান।

  • জালীসা = Jaleesa = সাহায্যকারী / স্বজন
  • জুনুন = Junun = বান্ধবী / সহকর্মী
  • জিয়াহ‌ ‌= Jiyah = অন্ধকার‌ ‌সময়ে‌ ‌যে‌ ‌আলো‌ ‌ছড়ায়‌ ‌
  • জুঁই‌ ‌=‌ ‌Jui = একটি‌ ‌ফুলের‌ ‌নাম।‌ ‌
  • জুলফা‌  ‌=‌ ‌Julfa = বাগান‌ ‌
  • জেবা‌  ‌=‌ ‌ Jeba = যথার্থ।‌ ‌
  • জাফনাহ =Jafnah = দানশীলা
  • জুহানাত = Juhanat =যুবতী মেয়ে
  • জাহিয়া = Zahia =দৃশ্যমান
  • জেসমিন‌ ‌=‌ ‌Jesmin = ফুলের‌ ‌নাম।‌ ‌
  • জোয়া‌ ‌= Joya = সত্যিকরে‌ ‌জীবিত‌ ‌একটি‌ ‌মেয়ের‌ ‌জন্য‌ ‌একটি‌ ‌জনপ্রিয়‌ ‌আধুনিক‌ ‌নাম‌ ‌
  • জাওহারা= Zawara = হীরা / মূল্যবান পাথর
  • জুওয়াইরিয়া = Zuwayria =ছোটমেয়ে
  • জাদওয়াহ  = Jadoyah  = উপহার
  • জুলফা  = Julfa  = বাগান
  • জালসান  = Jalsan  = বাগান
  • জুই / জুঁই  = Jui  = ফুলের নাম
  • জুথী / জুথীকা  = Juthi / Juthika  = নবমালিকা / জুঁই
  • জুহি  = Juhi  = ফুল বিশেষ
  • জিমি  = Jimi  = উদার
  • জারিন  = Jarin  = স্বর্ণ / স্বর্ণের তৈরি / সোনালী / সুবর্ণ
  • জারিন তাসনিম  = Jarin Tasnim  = সুবর্ণ ঝর্ণা
  • জেরিন  = Jerin  = সোনালী / সুবর্ণ / স্বর্ণ / স্বর্ণের তৈরি
  • জোহা  = Joha  = প্রতীক্ষা করা / প্রত্যাশা / অনুসন্ধান করা
  • জুলি  = Juli  = জলনালী / সরু নালা
  • জাকিয়া  = Jakia  = পবিত্র / নিষ্পাপ / নিরপরাধ / নির্দোষ

ইতিমধ্যে আপনারা অনেকগুলো নাম পড়েছেন। নিশ্চয়ই নামের বড় একটি তালিকা পড়ে জ বর্ণ দিয়ে তৈরি হওয়া মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে ভালো একটি ধারণা পেয়েছেন। যদি এখনো কোনো একটি নাম পছন্দ করতে না পারেন, তাহলে আপনি নিম্নে থাকা নামগুলো পড়েন। আশা করা যায়, খুব চমৎকার এবং আকর্ষণীয় একটি জ দিয়ে তৈরি হওয়া নাম চয়েজ করতে পারবেন। উল্লেখিত নামগুলোর সবগুলোই ইতিবাচক অর্থবহন করে। সুতরাং এখান থেকে যেকোনো একটি ইসলামিক নাম আপনার মেয়ের জন্য পিক করতে পারেন।

  • জাকিয়া সুলতানা  = Jakia Sultana  = পবিত্র রাণী / নিরপরাধ শাসক
  • জারা  = Jara  = রাজকুমারী / গোলাম / ছোট্ট প্রজাপতি
  • জাইয়ানা  = Jaiyna  = শক্তি
  • জামিয়া  = Jamia  = সুন্দর
  • জামানা  = Jamana  = মুক্তা
  • জানান  = Janan  = হৃদয় / আত্মা
  • জুনাইনাহ  = Junainah  = বেহেশতের বাগান
  • জুয়াইরিয়া  = Juyairia  = ছোট্ট বালিকা / যুবা মহিলা / এক ধরনের গোলাপ ফুল
  • জুওয়াইরিয়াহ   =  Juoyairiah   =  মহানবি সা. এর একজন স্ত্রী / ছোট্ট বালিকা
  • জাযিবা   =  Jazeba   =  আকর্ষণীয়
  • জাবীন / জেবিন   =  Jabin   =  কপাল / ললাট
  • জাসীমা   =  Jasima   =  মোটা / বিরাটকায়
  • জালওয়াত   =  Jalwat   =  ঘোমটা উন্মোচন / প্রত্যক্ষ করা
  • জালীলা   =  Jalila   =  মহতী
  • জামীলা / জামিলাহ   =  Jamila   =  সুন্দরী
  • জান্নাত   =  Jannat   =  বেহেশত / স্বর্গ
  • জারিয়াহ   =  Zariah   =  বালিকা / নৌকা
  • জিবলা   =  Zibla   =  প্রকৃতি / নিসর্গ
  • জাদীদাহ   =  Zadidah   =  নবীন / নতুন
  • জুমানা   =  zumana   =  মুক্তা / সাহাবীয়ার নাম
  • জামীমা   =  Zameema   =  একধরণের লতার নাম
  • জিন্নাত   =  Zinnat   =  পাগলামী
  • জুনাইনাহ   =  Zunainah   =  ক্ষুদ্র বাগান
  • জাওহারা   =  Zawhara   =  হীরা / মূল্যবান পাথর
  • জুওয়াইরিয়া   =  Zuwayria   =  ছোটমেয়ে
  • জাফনাহ   =  Jafnah   =  দানশীলা

জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম এর তালিকার প্রায় অর্ধেক নামগুলো পড়েছি। জ দিয়ে তৈরি হওয়া নাম সম্পর্কে অনেক ধারণা হয়েছে। এছাড়াও একটি নাম পিক করার পেছনে কী কী কারণ থাকতে হবে তাও শিখেছি। এখন খুব সহজেই নামের এই তালিকা থেকে যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে পারবো। উপরোক্ত নামগুলো থেকে একটি নাম পিক করে মেয়ের নাম রাখা যায় আবার যদি এখনো কোনো নাম চয়েজ করতে না পেরে থাকেন, তাহলে নিম্নের নামগুলো পড়ুন। নিম্নে আরো অনেকগুলো জ দিয়ে তৈরি হওয়া নাম দেওয়া আছে। পুরো পোস্টটি পড়লে এখান থেকে ‍খুব ভালো এবং ইতিবাচক অর্থবহ একটি সুন্দর নাম পছন্দ করতে সক্ষম হবেন।

  • জুহানাত   =  Juhanat   =  যুবতী মেয়ে
  • জাহিয়া   =  Zahia   =  দৃশ্যমান
  • জাফেরা   =  Zafera   =  সাহায্যকারিণী
  • জামেরা   =  Zamera   =   কৃশকায়া / পাতলা
  • জাইফা   =  Zayfa   =  অতিথিনী
  • জাহেকা   =  Zeheka   =  হাসিন
  • যারীয   =  Zarim   =  অগ্নিদগ্ধ / প্রেমিকা
  • জাহিরা   =  Zahera   =  প্রকাশিত / প্রভাবশালী
  • জাবিয়া   =  Zabia   =  হরিণ
  • জরীফা   =  Zarifa   =  বুদ্ধিমতী / চালাক
  • জলীলা   =  Zalila   =  আশ্রয়স্থান / বৃক্ষে ঢাকা উদ্যান
  • জায়ীনা   =  Zayena   =  সাহায্যকারী
  • জফিরা   =  Zafira   =  উটের পিঠের ওপর
  • জুহরাহ   =  Zuhrah   =  সম্ভ্রান্ত স্ত্রী লোক
  • জালীসা   =  Jaleesa   =  সাহায্যকারী / স্বজন
  • জুনুন   =  Junun   =  বান্ধবী / সহকর্মী
  • জাহানারা   =   Jahanara   =  পাগলামী / হালের ব্যান্ডদল
  • জয়া  = Joya  = স্বাধীন
  • জয়নব  = Joynab  = সুদশনী
  • জ্যোৎস্না / জোস্না  = Jostna  = চাঁদের আলো
  • জেসমিন  = Jasmin  = ফুলের নাম
  • জেবা মালিয়াত   =  Jeba Maliyat  =  যথার্থ সম্পদ
  • জেবা মাসুমা   =   Jeba Masuma  = যথার্থ নিষ্পাপ
  • জেবা মুবাশশিরা   =  Jeba Mubasshira  = যথার্থ শুভ সংবাদ
  • জেবা মুনওয়ারা   =  Jeba Munawara  = যথার্থ দীপ্তিমাপ
  • জেবা মুতাহরা   =  Jeba Mutahara  =  যথার্থ পবিত্র

জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের প্রায় শেষ স্তরে চলে আসলাম। ইতিমধ্যে আমরা প্রায় ১০০ উপরে জ দিয়ে মেয়েদের নাম পড়েছি। পড়ার পাশাপাশি জ দিয়ে মেয়েদের নাম কীভাবে পছন্দ করতে হবে তা সম্পর্কেও ধারণা পেয়েছি। সুতরাং এখন আমাদের কর্তব্য হলো পুরো পোস্টটি পড়ে এখান থেকে ‍খুবই সুন্দর এবং অর্থবহ একটি নাম চয়েজ করা। বলে রাখা ভালো যে, এখানে উল্লেখিত প্রতিটি নামই হলো ইসলামিক নাম এবং সবগুলো নামের ইতিবাচক একটি অর্থ রয়েছে। সে প্রেক্ষিতে চিন্তা করলে আপনি এখান থেকে যেকোনো একটি নাম পছন্দ করতে পারেন আপনার মেয়ের জন্য।

  • জেসি / জেসিকা / জেসা  = Jesi / Jesika  = জুঁই / নবমালিকা
  • জাহান  = Jahan  = পৃথিবী
  • জমিমা  = Jamima  = ভাগ্য
  • জাবিরা  = Jabira  = রাজি হওয়া
  • জাদিদাহ  = Jadidah  = নতুন
  • জাফনুন   =  Jafnun   =  জগতের সৌন্দর্য
  • জিন্নাতুন   =  Zinnatun   =  সফল ব্যক্তি / উত্তির্ণ ব্যক্তি
  • জেবা   =  Jeba   =  যথার্থ
  • জেবা আতকিয়া   =  Jeba Atiqiya   =  যথার্থ ধার্মিক
  • জেবা মায়মুনা   =  Jeba Maimuna   =  যথার্থ ভাগ্যবতী
  • জেবা সাজিদা   =  Jeba Sajida  = যথার্থ ধার্মিক
  • জেবা সামিহা   =  Jeba Samiha = যথার্থ দানশীল
  • জেবা শাহানা   =  Jeba Shahana  = যথার্থ রাজকুমারী
  • জেবা তাহিরা   =  Jeba Tahira  = যথার্থ সতী
  • জেবা তাহসিন   =  Jeba Tahsin  = যথার্থ সুন্দর
  • জেবা ওয়াসীমা   =  Jeba Wasima  = যথার্থ সুন্দর
  • জালীসাতুন সাদিকা   =  Jalisatun sadiqa  = চোখের পাতা

জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের সর্বশেষে ব্রেক এটি। অনেকগুলো নাম পড়লেন এবং ধারণা ফেলেন। প্রত্যাশা করা যায়, ইতিমধ্যে যেকোনো একটি জ দিয়ে নাম চয়েজ করতে সক্ষম হয়েছেন। যদি এখনো কোনো একটি নামও পছন্দ করতে না পেরে থাকেন, তাহলে নিম্নের নামগুলো পড়ুন। তাহলে আশা করা যায়, এখান থেকে J বা জ বর্ণ দিয়ে নামগুলো থেকে খুব সুন্দর একটি ইসলামিক নাম চয়েজ করতে পারবেন। তবে পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে পাশাপাশি নাম চয়েজের ক্ষেত্রে কোন দিকটিকে নজর দিতে হবে তাও জানতে হবে। যা  এ পোস্টে বার বার করে বলা হয়েছে । সুতরাং আর্টিকেলটি পুনরায় মনোযোগ সহকারে পড়ুন।
জামিলাতুন সাদিয়াহ   =  Jamilatun sadiah  = সত্যকর্মী সত্যবাদিনী / রূপসী

  • জহুরা মাহযুযা  = Jahura mahzuza  = সাহায্যকারিণী ভাগ্যবতী
  • জহুরা শারমীলা  = Juhura Sharmila  = সাহায্যকারিণী লজ্জাবতী
  • জালীসা সানজিদা  = Jalesa Sanjeda  = বান্ধবী সহযোগিনী
  • জামিলা মুবাশশিরা  = Jameela Mubasshira  = সুন্দরী সুসংবাদবহন কারিণী
  • জামীলা ওয়াহিদা  = Jamela Waheeda  = সুন্দরী তুলনাহীন
  • জামীলা তায়্যিবা  =  Jameela Taiyaba  = সুন্দরী পবিত্রা
  • জামীলা নাওয়ার  = Jamela naowar  = সুন্দরী সতী সাধ্বী স্ত্রীলোক
  • জেবা মালিহা   =  Jeba Maliha   =  যথার্থ রূপসী
  • জেবা রাহাত   =  Jeba Rahat  = যথার্থ শান্তি
  • জেবা রাইসা   =  Jeba Raisa  = যথার্থ রানী
  • জেবা রামিসা   =  Jeba Ramisa  = যথার্থ নিরাপদ
  • জেবা রানা   =  Jeba Rana  = যথার্থ কমনীয়
  • জেবা রেজওয়ান   =  Jeba Rezwan  = যথার্থ সন্তোষ
  • জেবা সাবিহা   =  Jeba Sabiha  = যথার্থ রূপসী
  • জহিরুন্নিসা  = Jahirun Nisa  = সাহায্যকারী নারী
  • জামিলা মোহসিন  = Jameela Mubasin  = সুন্দরী আকর্ষণীয়া
  • জহুরা হামীদা  = Jahra Hamida  = প্রকাশ্য প্রশংসাকারিণী
  • জাবীন দিবা = Jabin Deeba  = সোনালী ললাট / সোনার কপাল
  • জহুরুন্নিসা  = Jahurn nisa  = প্রকাশিত মহিলা
  • জমিলা খাতুন  = Jamila Khatun  = সুন্দরী মহিলা
  • জিবলা নাবাত  = Zabla nabat  = নিসর্গ সবুজ ঘাস
  • জাবীন লায়লা  = Jabin Laila  = শ্যামলা কপাল
  • জাহনাহ মুর্শিদা  = Jafnah Mursdidah  = দানশীলা পথপ্রদর্শনকারিনী
  • জুহানাত মানসূরা  = Juhanat Monsura  = বিজেতা যুবতী মেয়ে
  • জিন্নাহ মামদূহা  = Jinnat Mamduha  = প্রশংসিতা সম্ভ্রান্ত স্ত্রীলোক

যদি আপনি উপরোক্ত সবগুলো জ বর্ণ দিয়ে তৈরি হওয়া নাম পড়ে থাকেন, তাহলে অবশ্যই এতোক্ষণে জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে সম্মুখ একটা ধারণা হয়ে গেছে। আর আশা করা যায় ইতিমধ্যে যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে সক্ষম হয়েছেন। যদি এর উল্টো হয়, তাহলে দয়া করে পুনরায় পুরো পোস্টটি আবার আরেকবার পড়ুন। তাহলে জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে আরো ধারণা পাওয়ার পাশাপাশি এখান থেকে যেকোনো একটি নাম সংগ্রহ করতে পারবেন। এখানে উল্লেখিত সকল নামগুলো সতর্কভাবে বাঁচাইকৃত। সুতরাং কোনো রকম সন্দেহ বা দ্ধিধা ছাড়াই যেকোনো একটি নাম পিক করতে পারবেন। খুব ধৈর্য এবং মনোযোগ সহকারে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন। এতে করে নাম সম্পর্কে ধারণা পাবেন পাশাপাশি জ দিয়ে মেয়ের জন্য একটি অর্থবহ ইসলামিক নাম চয়েজ করতে পারবেন। সুতরাং পোস্টটি আবার পড়ুন।

জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের অর্থসহ

জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের অর্থসহ

যখন জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম খুঁজবেন, তখন অবশ্যই একটি জিনিসকে আপনাদের লক্ষ্য রাখতে হবে। আর সেটি হলো নামের অর্থ কী! বর্তমানের অনেক মা-বাবা আছে তাদের মেয়ে কিংবা ছেলে সন্তানের জন্য যখন নাম রাখা হয় বা সিলেক্ট করা হয় তখন তারা পশ্চিমা সংস্কৃতিকে বেশি ফলো করে। তখন তারা তাদের সন্তানের নাম রাখার ক্ষেত্রে অনেকগুলো ভুল করে থাকে। প্রথমমত মুসলিম হওয়া সত্ত্বেও তারা তাদের মেয়ের জন্য ইসলামিক নাম না রেখে নন-মুসলিম একটি নাম রাখে। দ্ধিতীয়ত, তারা যখন নামটি সিলেক্ট করে, তখন সেই নামের অর্থের দিকে গুরুত্ব দেয় না। এতে করে দেখা যায় প্রায় সবাই তাদের সন্তানের জন্য একটি নন ইসলামিক নাম চয়েজ করে এবং একই সাথে সে নামের অর্থটি নেতিবাচক কোনো অর্থকে ইঙ্গিত করে। যেমন অনেকগুলো নাম রয়েছে, যে নামগুলো আল্লাহর সাথে শিরক অর্থে ব্যবহৃত হয়। সেইসব নামগুলোকে সবসময় একজন মা-বাবা হিসেবে এবয়োড করতে হবে। কোনো মা-বাবাই চায় না যে তার সন্তানের নামটি নন ইসলামিক নাম হোক এবং সেই নামটি শিরক এর সাথে সম্পর্কিত থাকুক। তাই আজকের পোস্টে সেই দিকটিকে বার বার ইঙ্গিত দিয়ে বোঝানো হয়েছে। মূল ফোকাসটা ছিলই নামের অর্থের দিকে। যদিও জানি না কতজন মোট তা অনুধাবন করতে পেরেছে। এ ছোট্ট ভুলগুলো আমাদের কে বড় ভুল তথা শিরকের দিকে নিয়ে যায়। তাই আপনাদের কে সতর্ক করতে এখানে উল্লেখিত জ দিয়ে মেয়েদের সমস্ত নামগুলোই হলো ইসলামিক এবং নামুগুলো ইতিবাচক অর্থ বহন করে। সুতরাং এখান থেকে যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে পারেন।

জ দিয়ে মেয়ে শিশুদের ইসলামিক নাম

জ দিয়ে মেয়ে শিশুদের ইসলামিক নাম

বাংলা বর্ণ মালায় প্রায় সবগুলো বর্ণ দিয়েই মেয়েদের ইসলামিক নাম রয়েছে। যেমন আজকের পোস্টটি হলো জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম। ইন্টারনেটে যথেষ্ট পরিমাণ জ দিয়ে মেয়ে শিশুদের ইসলামিক নাম রয়েছে। আপনার কাজ হলো সেখান থেকে খুঁজে খুঁজে সে নামগুলো বের করা এবং পরিবারের নতুন সদস্যদের জন্য রাখা। কিন্তু বিশাল এই ইন্টারনেটের ডাটার মধ্যে কীভাবে এতোগুলো নাম খুঁজে বের করবেন তা নিয়ে অনেকে চিন্তা করেন। তাদের সুবিধার্থেই প্রতিনিয়ত আমরা ছেলে ও মেয়েদের বিভিন্ন বর্ণ দিয়ে তৈরি হওয়া নামগুলো প্রকাশ করে যাচ্ছি। ইতিমধ্যে আমরা অনেকগুলো নাম প্রকাশ করেছি যেমন ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম, ত দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম, আ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম, ম দিয়ে মেয়েদের আধুনিক নাম, র দিয়ে মেয়েদের নাম, শ দিয়ে মেয়েদের নাম, স দিয়ে মেয়েদের নাম সহ ইত্যাদি আরো অনেক বর্ণ দিয়ে মেয়েদের নামে আর্টিকেল প্রকাশ করা হয়েছে। নবীদের স্ত্রীদের নামগুলো থেকেও চয়েজ করতে পারেন। আজকে যেমন জ দিয়ে মেয়েদের নাম প্রকাশ করেছি ঠিক একই ভাবে মেয়েদের মিষ্টি নামগুলো প্রতিনিয়ত প্রকাশ করছি। যদি আপনি আপনার মেয়ের জন্য জ দিয়ে ইসলামিক নাম খুঁজে থাকেন, তাহলে আজকের পোস্ট থেকে যেকোনো একটি নাম সিলেক্ট করে ফাইনাল করতে পারেন।

জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে আরো জানতে

Leave a Comment