শিশুদের ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ ও চিকিৎসা (Symptoms And Treatment Of Dengue Fever In Children)

বাংলাদেশে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্তদের একটি বড় অংশই হলো শিশু । শিশুরা সাধারণত তাদের শারীরিক পরিস্থিতি সম্পর্কে তেমন সচেতন বা সতর্ক না হওয়ার কারণে তাদের ওপর এই রোগের প্রভাব অনেক ক্ষেত্রে বড়দের চাইতেও ভয়াবহ হওয়ার আশঙ্কা থাকে ।

 ডেঙ্গু হল একটি মশা বাহিত রোগ যা এডিস মশার কামড়ে হয় । তাই, ডেঙ্গু থেকে নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে সুরক্ষিত রাখার প্রথম পদক্ষেপ হল মশাদের দূরে সরিয়ে রাখার ব্যবস্থা করা । অনেক সময় বাচ্চাদের ডেঙ্গুর লক্ষণ সচরাচর ধরা পড়ে না । বাচ্চা যত ছোট হয় তার লক্ষণ ততই সাংঘাতিক হয় এবং সংক্রমণ হওয়ার চার দিন পর সেই লক্ষণ সনাক্ত করা যায় ।

 আজকে আমরা জানবো কি কি লক্ষণ দেখেই বুঝবো শিশুদের ডেঙ্গু জ্বর হয়েছে এবং চিকিৎসা সমূহ সম্পর্কে । 

শিশুদের ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ সমূহ (Symptoms Of Dengue Fever In Children) 

শিশুদের ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ সমূহ

বাচ্চাদের ডেঙ্গুর কিছু সাধারণ লক্ষণ এবং উপসর্গ রয়েছে যা একজন বাবা- মায়ের দেখা উচিত:

১) আপনার বাচ্চার যদি উচ্চ তাপমাত্রা অর্থাৎ খুব বেশি জ্বর থাকে( সাধারণত ১০২- ১০৫ ডিগ্রি ফারেনহাইট) এবং জ্বর ২৪ ঘণ্টা থেকে বেশী সময় ধরে থাকে তাহলে শিশু চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করুন । 

২) গুরুতর মাথাব্যথা- আক্রান্ত শিশুরা বিভিন্ন ধরনের শারীরিক অস্বস্তি অনুভব করতে পারে যেমন মাথাব্যথা, তাদের চোখের পিছনে নিস্তেজ কম্পন ব্যথা, পেশী এবং জয়েন্টে ব্যথা ইত্যাদি । ৩) ত্বকে র‍্যাশ হওয়া এবং এগুলি দেখতে মিজেলের মত চাকা চাকা( প্যাচ) হয়ে থাকে ।

৪) বাচ্চার সারা শরীরে লালচে দানা দেখা দিতে পারে । এ সময় শিশু একেবারে নিস্তেজ হয়ে যায় ।

 ৫) অনেক সময় মাড়ি বা নাক থেকে রক্তপাতের চিহ্ন দেখা দিতে পারে । 

৬) বয়স্ক মানুষের তুলনায়, স্বাভাবিকভাবেই বাচ্চারা বুঝতে অক্ষম হয় যে, তাদের শরীরে বাস্তবিক কি সমস্যা হচ্ছে । এর ফলে বাচ্চাদের মধ্যে বিরক্তিভাব ও ব্যবহারিক পরিবর্তন লক্ষ করা যায় । ওরা খুব খিটখিটে স্বভাবের হয়ে যায় এবং দেখা গেছে ওদের খিদেও কমে যায় ।

কিভাবে ডেঙ্গু জ্বর নির্ণয় করা হয়? (How Is Dengue Fever Diagnosed)

 কিভাবে ডেঙ্গু জ্বর নির্ণয় করা হয়?

আপনি যদি মনে করেন যে আপনার সন্তানের উপরোক্ত উপসর্গগুলির মধ্যে কোনো একটি প্রদর্শিত হচ্ছে এবং আপনি সন্দেহ করেন যে তার ডেঙ্গু জ্বর হয়েছে, তাহলে অনুগ্রহ করে এখনই ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করুন । 

Read More  বাদামের উপকারিতা | বাদামের ১৫টি উপকারিতা

একটি রোগ নির্ণয় করার জন্য, ডাক্তার শারীরিকভাবে আপনার সন্তানের পরীক্ষা করবেন এবং লক্ষণগুলি মূল্যায়ন করবেন । আপনার সন্তান যদি ডেঙ্গু জ্বর এবং জ্বর বা প্রচণ্ড মাথাব্যথায় আক্রান্ত হয় এমন কোনো অঞ্চলে গিয়ে থাকলে ডাক্তারকে জানান । ডাক্তার পরীক্ষার জন্য ডায়াগনস্টিক ল্যাবে একটি রক্তের নমুনা পাঠাবেন, যা আপনার সন্তানের ডেঙ্গু জ্বর আছে কিনা তা নিশ্চিত করতে সাহায্য করবে ।

শিশুদের ডেঙ্গু জ্বরের চিকিৎসা (Treatment Of Dengue Fever In Children)

শিশুদের ডেঙ্গু জ্বরের চিকিৎসা

 আপনার শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ বা জেনারেল ফিজিশিয়ানের সাথে দেখা করুন । বেশীরভাগ ডাক্তাররা শরীরে ডেঙ্গু ভাইরাস উপস্থিত রয়েছে কিনা দেখার জন্য একটি ব্লাড টেস্ট করতে বলবেন ।

 সাধারণত, ডেঙ্গু নিজে থেকেই সেরে যায় এবং এর জন্য কোন বিশেষ ওষুধ নেই, তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে শিশুদের হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার প্রয়োজন হতে পারে । নিম্নের সতর্কতা গুলি পালন করা সুনিশ্চিত করবেন –

  •  ডেঙ্গু জ্বরের বাচ্চাকে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টিকর খাবার খাওয়াবেন ।
  •  শিশুর জ্বর কমানোর জন্য কপালে এক টুকরা ভেজা কাপড় রাখবেন ।
  •  জ্বর হলে সুনিশ্চিত করবেন আপনার বাচ্চা যেন প্রচুর পরিমাণে উষ্ম পানীয় গ্রহণ করে । 
  • পেপের জুস খুব উপকারী । এর মাত্রার বিষয়ে ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন । 
  • ডিহাইড্রেশন আটকানোর জন্য বাচ্চাকে ইলেক্ট্রোলাইট/ও.আর.এস. পাউডার খাওয়াবেন ।
  •  বাচ্চার জ্বর হলে যথেষ্ট বিশ্রাম নেওয়া সুনিশ্চিত করবেন – সে যেন খেলাধুলো না করে এবং মোবাইল/ টিভি/ আই প্যাড ইত্যাদি না দেখে । 
  • বাচ্চাকে গল্প বলা কিংবা গান গাওয়ার মাধ্যমে ব্যস্ত রাখার চেষ্টা করতে হবে । 
  • বাচ্চাকে খুশী ও ব্যস্ত রাখার আরেকটি উপায় হল বোর্ড গেম খেলার সুযোগ দেওয়া । 
  • আপনার বাচ্চা যে ঘরে আরোগ্য লাভ করছে, সেই ঘরের মশা বিতাড়কের স্যুইচ অন করে রাখতে ভুলবেন না । 
  • বাসার আনাচে কানাচে যেখানে মশা থাকতে পারে সেখানে অবশ্যই স্প্রে করতে হবে । 
  • মশার বংশবিস্তার যাতে না হয় সেজন্য ঘর- বাড়ি অবশ্যই পরিষ্কার রাখতে হবে, কোথাও পানি জমতে দেওয়া যাবে না । 
  • শিশুর জ্বরের সঙ্গে রোগসংক্রান্ত জটিলতা বৃদ্ধি পাওয়ার আগেই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়া উচিত। চিকিৎসকের নির্দেশে রক্তে কমপ্লিট ব্লাড কাউন্ট, এনএস ওয়ান অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করাবেন ।
Read More  কিডনি ভালো রাখার উপায় | ১৫টি উপায় জেনে নিন

ডেঙ্গু জ্বর কি প্রতিরোধ করা যায়? (Can Dengue Fever Be Prevented)

ডেঙ্গু জ্বর কি প্রতিরোধ করা যায়

যেহেতু ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধ করার জন্য এখনও কোনও টিকা নেই, তাই সর্বোত্তম সুরক্ষা হল আপনার শিশুকে সংক্রামিত মশা যাতে কামড়াতে না পারে তা নিশ্চিত করা । ডেঙ্গু জ্বরের ক্ষেত্রে প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধই উত্তম এবং এই রোগ থেকে আপনি নিজেকে এবং আপনার পরিবারকে রক্ষা করতে পারেন এমন বেশ কয়েকটি উপায় রয়েছে:

  • বায়ু চলাচলের দিকটি নিয়ে আপস না করে মশাকে দূরে রাখতে দরজার ফ্রেম এবং জানালায় পর্দার জাল ব্যবহার করুন । সমস্ত স্ক্রীনবিহীন জানালা এবং দরজা অবশ্যই বন্ধ রাখতে হবে ।
  •  নিশ্চিত করুন যে বাচ্চারা যখনই বাড়ির বাইরে পা রাখে তখন তারা লম্বা- হাতা শার্ট, লম্বা প্যান্ট, জুতা এবং মোজা পরেছে ।
  •  বাচ্চাদের বাইরের ক্রিয়াকলাপ সীমিত করুন বিশেষ করে ভোর এবং সন্ধ্যার, যখন আশেপাশে মশা সবচেয়ে বেশি সক্রিয় থাকে । 
  • মশাদের বংশবিস্তার করার জায়গা দেবেন না । তারা স্থির পানিতে ডিম পাড়ে, তাই পাত্র, মগ, বেসিন, পাত্র, বালতি সহ ড্রেনিং সিঙ্ক এবং বাথটাব গুলিও স্থায়ী জলের উৎস থেকে মুক্তি পান । পানি সরানো বা ঢেকে আছে তা নিশ্চিত করুন ।

 পৃথিবীর প্রায় সব জায়গায় মশা পাওয়া যায় এবং তাদের বংশবৃদ্ধির জন্য একমাত্র পানির প্রয়োজন । তাই মশার সংখ্যা নিয়ন্ত্রণ করা খুবই কঠিন হয়ে পড়ে এবং অনেক সময় প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থাও সামান্য প্রভাব ফেলতে পারে । 

শেষ কথা

কোনো শিশুর জ্বর ৫- ৬ দিন পার হয়ে গেলে চিকিৎসকের পরামর্শে ডেঙ্গুর উপস্থিতি নির্ণয়ের জন্য অন্যান্য প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করাবেন । ডেঙ্গুর অ্যান্টিবডি ৫- ৬ দিন আগে ধরা পড়ে না । এ জন্য আগেভাগে অ্যান্টিবডি টেস্ট করার দরকার নেই । এ ক্ষেত্রে অ্যান্টিজেন (Antigen) পরীক্ষা করাতে হবে । আপনার স্বাস্থ্য সম্পর্কিত যেকোনো পরামর্শের জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে নিয়মিত Visit করুন।

Read More  আদার উপকারিতা | স্বাস্থ্যগতভাবে আদা খাওয়ার ১৫টি উপকারিতা

আরও পড়ুন : পায়ের মাংসপেশিতে টান লাগলে করণীয় (What to do if the leg muscles are tight)

মাথা ব্যথা দূর করার ঘরোয়া উপায় (Home remedies for headache)

Leave a Comment