ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম খুঁজতে গিয়ে সদ্য জন্ম নেওয়া মেয়ে সন্তানের গার্ডিয়ানদের প্রচুর বেগ পেতে হয়। তাদের কষ্ট কিছুটা লাঘব করতে এবং নাম চয়েজের ক্ষেত্র আরো সহজ করতেই আজকের এই নাম সক্রান্ত আর্টিকেলটি। মেয়ে শিশু জন্মানোর পর থেকেই মা-বাবাদের নাম রাখা নিয়ে অতিরিক্ত একটু টেনশন করতে হয়। আর যদি সেই নামটা  মেয়েদের ইসলামিক নাম হয়, তাহলে ভেবে-চিন্তে একটু ভালো ও অর্থবহ নাম সিলেক্ট করতে হয়। এখন বর্তমানে অনেকে আছে যারা  মেয়েদের আধুনিক মিষ্টি নাম রাখতে গিয়ে নানান রকম নন-ইসলামিক নাম চেয়েজ করে। আবার অনেকে ইসলামিক একটি নাম রাখতে চায় এবং শেষ অবধি একটি ইসলামিক নাম তার মেয়ের জন্য সিলেক্ট করে রেখে দেয়। কিন্তু পরোক্ষণে যখন সে নামটির অর্থের দিকে নজর দেয়, তখন দেখা যায় অধিকাংশই যে ভুলটি করে, তা হলো নামের অর্থটি নেতিবাচক। তখন অনেকে বাধ্য হয়ে মেয়ের নামটি চেঞ্জ করে আবার কেউ-বা আগেরটিই রেখে দেয়। এখন এই আর্টিকেলটি যারা পড়ছেন, তাদের অবশ্যই ই দিয়ে আপনার মেয়ে অথবা আত্মীয়দের মধ্যে কারো জন্য একটি নাম চয়েজ করতে চেষ্টা করছেন। বলে রাখা ভালো যে এখানে উল্লেখিত প্রতিটা নাম ইসলামিক অর্থাৎ ই দিয়ে মেয়েদের সবগুলো নামই এখানে ইসলামিক। শুধু ইসলামিক হলেই কর্তব্য শেষ নয়! দেখতে হবে  ই দিয়ে যে মেয়েদের নামগেুলো এখানে রয়েছে, সেগুলো কী ধরনের অর্থ বহন করছে। নেতিবাচক নাকি ইতিবাচক। আমাদের কণ্যা সন্তানের জন্য অবশ্যই এখান থেকে ই দিয়ে একটি ইতিবাচক অর্থবহ ইসলামিক নাম চয়েজ করতে হবে এবং সেই নামটিই মেয়ের ডাক নাম অথবা নিক নেইম হিসেবে রাখতে হবে। হয়তো এখন বোঝে গেছেন যে কীভাবে আপনি আপনার মেয়েদের জন্য ই দিয়ে ইসলামিক নাম সিলেক্ট করে সেটি পিক করবেন। আর নাম চয়েজে কোন দিকটিকে প্রাধান্য দিতে হবে। যদি এটি বোঝে থাকেন তাহলে পোস্টটি পড়া চালিয়ে যান, এবং আশা করা যায় এখান থেকে ভালো এবং মেয়ের জন্য অর্থবহ ই দিয়ে একটি ইসলামিক নাম চয়েজ করতে সক্ষম হবেন।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: পাঠকদের পড়ার সুবিধার্থে এবং শ্রুতিমধুর দেখতে  ২০ টা নামের পর-পর ই দিয়ে ইসলামিক নামের একটা সংক্ষিপ্ত ব্রেক এবং এভাবে ৪টি ব্রেকের মাধ্যমে ই দিয়ে মেয়েদের প্রায় ১০০টি ইসলামিক নামের তালিকা উল্লেখ করা হলো।

ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

নিম্নোক্তে উল্লেখিত এখানের প্রতিটি নাম ই দিয়ে এবং প্রতিটি নামই মেয়েদের জন্য ইসলামিক নাম। আপনি যদি সত্যিকার অর্থে আপনার মেয়ে কিংবা আত্মীয় কারো জন্য ই দিয়ে মেয়েদের  ইসলামিক একটি সুন্দর নাম খুঁজে থাকেন, তাহলে আজকের পোস্টটি আপনার জন্য। মনোযোগ সহকারে সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ুন। এখান থেকে খুবই সুন্দর এবং ইসলামিক ই দিয়ে একটি নাম আপনার মেয়ের জন্য বা অন্য কারো জন্য সিলেক্ট করতে পারবেন। সুতরাং আলোচনা দীর্ঘায়িত না করে চলুন নামগুলো পড়া যাক। ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম গুলো হলো-

  • ইসমাত আফিয়া  = Ismat Afia =  সতী, পুণ্যবতী
  • ইসমাত আবিয়াত  = Ismat Abiyat = সতী সুন্দরী স্ত্রীলোক
  • ইফফাত মুকাররামাহ  = Isfat Mukarramah = সতী সম্মানিতা
  • ইসমত  = Ismat = প্রতিরোধ / সাধুতা / সতী
  • ইজ্জত  = Ijjat = প্রতিপত্তি / সম্মান
  • ইশরত  = Ishrot = অন্তরঙ্গতা / বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক
  • ইসতিনামাহ  = Istinamah = আরাম করা
  • ইফফত  = Iffot = সাধুতা / নির্মল
  • ইসতিনামাহ  = Istinamah = আরাম করা
  • ইশারাত  = Ishrat = হুকুম দেয়া / ইশারা করা
  • ইশাআ’ত  = Ishayat = আলোক রশ্মির বিকিরণ
  • ইশতিমাম  = Istimum = গন্ধ নেয়া
  • ইশফাক্ব  = Ishfakh = করুণা
  • ইফফাত কারিমা  = Iffaty karima = সতী দয়াবতী
  • ইফফাত তাইয়িবা  = Iffat Taibah = সতী পবিত্রা
  • ইয়াসমীন যারীন  = Iyasmin Jarin = সোনালী জেসমীন ফুল
  • ইশরাত সালেহা  = Ishrat Saleha = উত্তম আচরণ পুণ্যবতী
  • ইসমত সাবিহা  = Ismot Sabiha =  সতী সুন্দর
  • ইয়াকীনাহ  = Iyakinah = নিশ্চয়তা / দৃঢ়বিশ্বাস
  • ইয়ুমনা  = Iyumona = আশীষ / সৌভাগ্য

প্রায় বিশটি ই দিয়ে তৈরি ইসলামিক মেয়েদের নাম পড়েছেন।  হয়তো  বা অনেকেই উপরোক্ত অবস্থিত সামান্য কিছু নাম পড়ে এখান থেকে যেকোনো একটি চয়েজ করতে সক্ষম হয়েছেন। আবার হয়তো বেশির ভাগ মানুষই এখনো ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক একটি নামও এখনো চয়েজ করতে পারেন নি। যারা দ্ধিতীয় অবস্থানে আছেন, তারা যদি পুরোেআর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়েন, তাহলে অবশ্যই এখান থেকে ‍খুবই চমৎকার এবং অর্থবহ একটি ভালো নাম চয়েজ করতে সক্ষম হবেন। তার জন্য মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে। চলুন ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকার পরের অংশটুকুর পড়া চালিয়ে যাই।

  • ইশরাত  = Ishrat = উত্তম আচরণ
  • ইশতিমাম  = Istimum = ঘ্রাণ নেয়া
  • ইশাত  = Ishat = বসবাস
  • ইবশার  = Ibshar = সুসংবাদ প্রাপ্ত হওয়া
  • ইফাত  = Ifat = উত্তম / বাছাই করা
  • ইশফাকুন নেসার  = Ishfakun Neshar = মাতৃ / জাতির দয়া
  • ইসমাত আফিয়া  = Ismat Afia = সতী / পুণ্যবতী
  • ইসমাত আবিয়াত  = Ismat Abiyat = সতী সুন্দরী স্ত্রীলোক
  • ইফফাত মুকাররামাহ  = Iffat Mukarramah = সতী সম্মানিতা
  • ইফতিখারুন্নিসা  = Iftikharunisa = নারীসমাজের গৌরব
  • ইসমাত মাকসুরাহ  = Ismat Maksurah = সতী পর্দানিশীন স্ত্রীলোক
  • ইশরত  = Isrot = অন্তরঙ্গতা, বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক
  • ইফতিখারুন্নিসা  = Iftikharunisa = নারীসমাজের গৌরব
  • ইসমাত মাকসুরাহ  = Ismat Makhsurah = সতী পর্দানিশীন স্ত্রীলোক
  • ইফফাত হাসিনা  = Iffat Hasina = সতী সুন্দরী
  • ইফফাত সানজিদা  = Iffat Sanjida = সতী চিন্তাশীলা
  • ইয়াসীরাহ  = Yasirah = আরাম / স্বাচ্ছন্দ
  • ইয়াকূত  = yakut = মূল্যবান পাথর
  • ইয়াসমিন  = Yasmin = ফুলের নাম / জেছমিন
  • য়াসমীন জামীলা  = Yasmin Jamila = সুগন্ধিফুল সুন্দর
  • ইশরাত জামীলা  = Israt Jamila = সদ্ব্যবহার সুন্দরী

ই দিয়ে মেয়েদের সুন্দর ইসলামিক নামের প্রায় অর্ধেক লিস্ট আমাদের ইতিমধ্যেই পড়া শেষ। এখানে উল্লেখিত প্রতিটি নামই যাচাইকৃত।সুতরাং এমন ভাবা ঠিক হবে না যে এখানের নামগুলো কোনো ভাবে নেতিবাচক অর্থবহন করছে। বরং এখানের প্রতিটি উল্লেখি মেয়েদের নামগুলো ইতিবাচক অর্থ বহন করছে পাশাপাশি সবগুলো ইসলামিক এবং চমৎকার নাম। তাই আপনার মেয়ে সন্তানের জন্য যদি ই দিয়ে ইসলামিক নাম খুঁজে থাকেন,তাহলে আজকের নামের উল্লেখিত তালিকা থেকে আপনার ইচ্ছানুযায়ী যেকোনো একটি চয়েজ করতে পারেন।

  • ইফফাত যাকিয়া = Iffat jakia = পবিত্রা বুদ্ধিমতী
  • ইফফাত ফাহমীদা  = Iffat Fahmida = সতী বুদ্ধিমতী
  • ইসমাত মাহমুদা  = Ismat Mahmuda = সতী প্রশংসিতা
  • ইফফাত ওয়াসীমাত = Iffat Wasimat = সতী সুন্দরী
  • ইফফাত হাসিনা  = Iffat Hasina = সতী সুন্দরী
  • ইফাত হাবীবা  = Ifat Habiba = সতী প্রিয়া
  • ইফফাত সানজিদা  = Iffat Sanjida = সতী চিন্তাশীলা
  • ইসমাত বেগম  = Ismat Begum = সতী-সাধ্বী মহিলা
  • ইফফাত কারিমা  = Iffat Karima = সতী দয়াবতী
  • ইফফাত তাইয়িবা  = Iffat Taiyiba = সতী পবিত্রা
  • ইশতিমাম  = Ishtimum = ঘ্রাণ নেয়া
  • ইবশার  = Ibshar = সুসংবাদ প্রাপ্ত হওয়া
  • ইশফাকুন নেসা  = Ishfakun Nesha= মাতৃ, জাতির দয়া
  • ইশতিমাম  = Ishtimum = গন্ধ নেয়া
  • ইশফাক্ব  = Ishfak = করুণা
  • ইয়াসীরাহ  = Yasira = আরাম, স্বাচ্ছন্দ
  • ইফফাত যাকিয়া  = Iffat Jakira = পবিত্রা বুদ্ধিমতী
  • ইফফাত ফাহমীদা  = Iffat Fahmida = সতী বুদ্ধিমতী
  • ইসমাত মাহমুদা  = Ismat Mahmuda = সতী প্রশংসিতা
  • ইফফাত ওয়াসীমাত  = Iffat Wasimat = সতী সুন্দরী

মেয়েদের ই দিয়ে ইসলামিক নাম চয়েজের ক্ষেত্রে কয়েকটি দিককে তাৎপর্যপূর্ণভাবে দেখতে হবে। যেমন এর মধ্যে একটি হলো নামের অর্থ। অন্যটি হলো নামটি ইসলামিক অথবা মুসলিম নাম কি-না। এই দুইটি দিক অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে কণ্যা কিংবা ছেলে সন্তানের নাম সিলেক্টের ক্ষেত্রে। অনেকে ভুল করে ইসলামিক নাম চয়েজ করে কিন্তু পরোক্ষণে দেখা যায় যে, সেই নামটি ইসলামিক ছিল বটে কিন্তু মেয়ের নামটির অর্থ ছিল নেতিবাচক। যা কোনো মা-বাবাই চায় না তাদের সন্তানের নামটির অর্থ নেতিবাচক হোক। অবশ্যই তারা চায় তাদের মেয়ে সন্তানের নামটি ভালো অর্থবহ হোক এবং একইসাথে ইসলামিক একটি সুন্দর নাম হোক। তাই এখানে উল্লেখিত ই দিয়ে সকল ইসলামিক নামগুলো পড়তে পারেন। আশা করি এখান থেকে ভালো একটি ইসলামিক নাম আপনার মেয়েদের জন্য চয়েজ করতে পারবেন। সুতরাং পোস্টটি পড়া চালিয়ে যান।

  • ইয়াসমীন জামীলা  = Yasmin Jamila = সুগন্ধিফুল সুন্দর
  • ইশরাত জামীলা  = Ishrat Jamila = সদ্ব্যবহার সুন্দরী
  • ইয়াসমীন যারীন  = Yasmin Jarin = সোনালী জেসমীন ফুল
  • ইসমত সাবিহা = Ismot Sabha = সতী সুন্দর
  • ইশারাত = Isharat = হুকুম দেয়া, ইশারা করা
  • ইশাআ’ত = Ishaa’t  = আলোক রশ্মির বিকিরণ
  • ইশফাক্ব = Ishfaq = করুণা
  • ইয়াসমিন = Yasmin = ফুলের নাম, জেছমিস
  • ইয়াকীনাহ = Yaqinah = নিশ্চয়তা, দৃঢ়বিশ্বাস
  • ইশফাকুন নেসা = Ishfaqun Nea = -মাতৃ, জাতির দয়া
  • ইসমাত আবিয়াত = Ismat abiat = সতী সুন্দরী স্ত্রীলোক
  • ইয়ুমনা = Yumna =  আশীষ, সৌভাগ্য
  • ইলহাম‌ ‌= Ilham ‌= তার‌ ‌চারপাশে‌ ‌সবার‌ ‌জন্য‌ ‌অনুপ্রেরণা‌ ‌একটি‌ ‌মেয়ে‌ ‌
  • ইসমাত‌ ‌আফিয়া‌ ‌=‌ ‌Ismat Afiya = পূর্ণবতী।‌ ‌
  • ইসরাত‌  ‌=‌ ‌Israt = সাহায্য।‌ ‌
  • ইসমত = Ismat = প্রতিরোধ, সাধুতা, সতী
  • ইয়াসমীন জামীলা =Yasmin jamila = সুগন্ধিফুল সুন্দর
  • ইশরাত জামীলা= Ishrat jamila = সদ্ব্যবহার সুন্দরী
  • ইফফাত যাকিয়া = Iffat zakia = পবিত্রা বুদ্ধিমতী
  • ইফফাত ফাহমীদা = Iffat Fahmifdaর্থ = সতী বুদ্ধিমতী
  • ইসমাত মাহমুদা = Ismat Mahmooda =সতী প্রশংসিতা

ই দিয়ে মেয়েদের সুন্দর ইসলামিক নামের এটি হলো সর্বশেষ ব্রেক। এখন পর্যন্ত অনেকগুলো ই দিয়ে মেয়েদের নাম পড়েছেন। যদি মনোযোগ সহকারে পুরো পোস্টটি পড়ে থাকেন, তাহলে এখান থেকে যেকোনো একটি নাম চয়েজ করার কথা। তবে এখনো যদি কোনো একটি নাম চয়েজ করতে না পেরে থাকেন, তাহলে অবশ্যই নিম্নের নামগুলোও পড়ুন। আশা করা যায়, এখান থেকে যেকোনো একটি ই দিয়ে মেয়েদের নাম আপনার পছন্দ হবে । এখানে উল্লেখিত ই দিয়ে মেয়েদের নামগুলো বাচাইকৃত একই সাথে সুন্দর ও ইসলামিক। সুতরাং যেকোনো একটি নাম সিলেক্ট করে আপনার মেয়ের জন্য রাখতে পারেন। ই দিয়ে নাম চয়েজ করতে পুরো পোস্টেটি পড়ুন।

  • ইফফাত ওয়াসীমাত = Iffat wasimat = সতী সুন্দরী
  • ইফফাত হাসিনা= Iffat Hasina = সতী সুন্দরী
  • ইফাত হাবীবা = Efat Habiba =সতী প্রিয়া
  • ইফফাত সানজিদা = Effat sanjida = সতী চিন্তাশীলা
  • ইসমাত বেগম = Ifmat Begom =সতী-সাধ্বী মহিলা
  • ইফফাত কারিমা = Effat karima = সতী দয়াবতী
  • ইফফাত তাইয়িবা = Effat Tayiba = সতী পবিত্রা
  • ইয়াসমীন যারীন = Yasmin jarin = সোনালী জেসমীন ফুল
  • ইশরাত সালেহা = Ishrat saleha = উত্তম আচরণ পুণ্যবতী
  • ইসমত সাবিহা = Ismat sabiha = সতী সুন্দর

মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকার সবগুলো নাম ইতিমধ্যে পড়া শেষ করেছেন। এখান থেকে ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম চয়েজ করতে কোনো রকম বেগ পাওয়ার সম্ভাবণা নেই। কেননা এখানে উল্লেখিত প্রতিটা নাম হলো ইসলামিক এবং একই সাথে ইতিবাচক অর্থবহন করা নাম। সুতরাং যদি নামের পুরো লিস্টটি পড়ে থাকেন কিন্তু এখনো কোনো নাম চয়েজ করতে না পেরে থাকেন, তাহলে দয়া করে পুনরায় ই দিয়ে মেয়েদের নামের পোস্টটি পড়ুন। আশা করি ভালো একটি অর্থবহ নাম চয়েজ করতে সক্ষম হবেন।

ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের অর্থসহ

ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের অর্থসহ

এটা এমন না যে যখন শুধু মাত্র ই দয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম খুঁজবেন, তখনই নামের অর্থের দিকে নজর দিবেন। আপনাকে একটা জিনিস অবশ্যই বোঝতে হবে এবং অনুধাবন করতে হবে, নাম চয়েজের ক্ষেত্রে বিশেষ করে মুসলিমদের কয়েকটা দিক তথা বিশেষ দুইটা দিকের প্রতি অবশ্যই নজর দিতে হবে। এটা অনেকবার আলোচনা করা হয়েছে। কিন্তু তারপরও বার বার সতর্কের অর্থে এই জিনিসটা হ্যাডিং আকারে উল্লেখ করচি। মেয়েদের বা ছেলেদের যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে চাইলে আপনি নামটি ইসলামিক কি-না তা একবার দেখবেন। আবার একই ভাবে দেখবেন সেই নামটি ইসলামিক হওয়া সত্ত্বেও কি অর্থ বহন করছে। যেকোনো নাম সাধারণত দুটি অর্থ বহন করে। এক হলো নেতিবাচক এবং অন্যটি হলো ইতিবাচক। এখানে উল্লেখিত ই দিয়ে মেয়েদের প্রতিটি নাম ইসলামিক আবার একই সাথে সেগুলো ইতিবাচক অর্থবহন করছে। সুতরাং নাম চয়েজের ক্ষেত্রে কোনো কার্পন্নতা না রেখে এখান থেকে যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে পারেন আপনার মেয়ের জন্য। তারপর অতিরিক্ত সতর্ক হিসেবে আপনার সিলেক্ট কৃত ই দিয়ে মেয়ের নামটি আবার চেক দিন। আশা করি বিষয়টি বোঝতে পেরেছেন যে কোনো আমাদের ই দিয়ে তথা সকল বর্ণ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের  অর্থের দিকে নজর দিতে হবে।

ই দিয়ে মেয়ে শিশুদের ইসলামিক নাম রাখা

ই দিয়ে মেয়ে শিশুদের ইসলামিক নাম রাখা

ই দিয়ে মেয়ে শিশুদের ইসলামিক নাম রাখা কেন প্রয়োজন? এটা বোঝতে আপনাকে অনেক জ্ঞানী হওয়ার প্রয়োজন নেই। এখানে উল্লেখিত নামগুলো যারা পড়ছেন, তাদের অধিকাংশই হলো মুসলিম। অধিকাংশ বলতে প্রায় সবাই। এখন একজন মুসলিম হিসেবে আমাদের মেয়ে সন্তানের নামটি অবশ্যই ইসলামিক হওয়া উচিত। পাশাপাশি নামটি ইসলামিক কি-না তা দেখার জন্য যাচাই করতে হবে। যাচাই করার পালা টা তখনই আসে, যখন আমরা একটি নাম সিলেক্ট করতে পেরেছি। এখানে বেশ অনেকগুলো  ই বর্ণ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেওয়া হয়েছে। জাস্ট এখান থেকে আপনাকে যেকোনো একটি নাম দেখে পড়ে সিলেক্ট করতে হবে। সিলেক্টের ক্ষেত্রে অবশ্যই অর্থের দিকে একটু নজর দিবেন। যদিও এখানে উল্লেখিত প্রতিটি নামই ইতিবাচক অর্থ বহন করে। তাই যদি  এখান থেকে ই দিয়ে মেয়ের জন্য ইসলামিক নাম সিলেক্ট করতে চান এবং তা ফাইনাল করতে চান, তাহলে কোনো রকম সংকোচ ছাড়াই এখান থেকে যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে পারেন। একজন মুসলিম হিসেবে বড় হয়ে যখন আপনার মেয়ে পরিচয় দিতে যাবে এবং তার নামটি থাকবে নন-ইসলামিক একটি নাম, তখন সে নানা রকম সংকীর্ণতায় থাকবে। তাই অন্তত ভবিষ্যৎ এবং আখিরাতের দিকটি মাথায় রেখে মেয়ের নাম এবং ছেলের নাম রাখার ক্ষেত্রে নামটি ইসলামিক কি-না তা একটু মেক সিউর করবেন। এতে করে আপনার এবং সন্তান ‍উভয়ের জন্য লাব।

প্রতিনিয়ত আমরা আমাদের সাইটে বিভিন্ন রকম বর্ণ দিয়ে তৈরি ইসলামিক নামগুলো প্রকাশ করে যাচ্ছি। কিছু  উল্লেখযোগ্য পোস্ট হলো ত দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম, ম দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম, আ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম, স দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম, র দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম, শ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম সহ আরো অনেক রকমের বর্ণ দিয়ে তৈরি মেয়েদের ইসলামিক নামগুলো পোস্ট হচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় আজকে ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম এর আর্টিকেলটি পোস্ট দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও মহিলা সাহাবীদের নামগুলোও দেখতে পারেন পাশাপাশি নবীর সব স্ত্রীদের নামগুলো পড়তে পারেন।

ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে আরো জনতে

1 thought on “ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ”

Leave a Comment