নগদ একাউন্টের পিন নাম্বার ভুলে গেলে করণীয় । নতুন পিন পাবার নিয়ম

নগদ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে করণীয়

সাধারণত সব ধরনের মোবাইল ব্যাংকিংগুলোতে গোপন পিন নাম্বার থাকে এবং সেই গোপন পিন নাম্বার দিয়ে একজন অর্জিনাল গ্রাহকই কেবল তার একাউন্টে এক্সেস করতে পারে। পিন নাম্বার মনে রাখাও একটা আর্ট। কিন্তু সমস্যা হলো যদি আপনি বা কোনো গ্রাহক সেই পিন নাম্বারটি ভুলে যায় তাহলে? এক্ষেত্রে একজন নগদ গ্রাহক খুব সহজে তার সমস্যার সমাধান অর্থাৎ ভুলে যাওয়া নগদের গোপন পিন নাম্বার উদ্ধার করতে পারবে নগদ হেল্পকেয়ার বা নগদ কস্টমার কেয়ারের সাহায্য নিয়ে।

কিন্তু এটা কীভাবে?

তো চলুন জানা যাক কীভাবে নগদ একাউন্টের ভুলে যাওয়া পিন নাম্বার নতুন করে নেওয়া যায়।

নগদ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে যা করবেন

নগদ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে যা করবেন

এমনিতে সচারাচর কোনো নগদ গ্রাহকই তাঁর একাউন্টের পিন নাম্বার ভুলে যায় না। কিন্তু তারপরও যদি কোনো গ্রাহক তার নগদ একাউন্টের পিনটি কোনো কারণে ভুলে যায়, তাহলে এক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি কাজ করতে পারে। এরজন্য অনেকগুলো নিয়ম রয়েছে যা অ্যাপ্লাইয়ের মাধ্যমে একজন গ্রাহক তার গোপন পিন উদ্ধার বা নতুন করে দিতে পারবে। তার মধ্যে সবচেয়ে সহজ পদ্ধতিটি নিয়ে আজকের আমাদের এই আর্টিকেল। তাই পিন উদ্ধার করে নতুন পিন বসানো সম্পূর্ণ জানেতে পুরো আর্টিকেলটি পড়ুন।

মূহর্তেই নগদ একাউন্ট চেক করে ফেলুন

নগদ কাস্টমার কেয়ারে কথা বলুন

নগদ কাস্টমার কেয়ার

প্রথমে আপনাকে *16167# মোবাইল থেকে ডায়াল করে কাস্টমার কেয়ারের সাথে কথা বলুন। এর জন্য সবচেয়ে ভালো হয় আপনার যে নাম্বারে নগদ একাউন্টটি সে মোবাইল নাম্বার থেকে নগদ অফিসে ফোন দিন।

কল দেওয়ার পর এবং কল রিসিভ করার পর আপনি আপনার সমস্ত সমস্যা কাস্টমার কেয়ারের সাথে খুলে বলূন।

চাইলে এভাবেও বলতে পারেন, “ স্যার, আমি ভুলবশত আমার নগদ একাউন্টের পিন নাম্বারটি ভুলে গেছি। এমতোবস্থায় আমার করণীয় কী বা আপনি আমাকে একটু সাহায্য করুণ”

Read More  নগদ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম | নগদ একাউন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত

অথবা আপনি আপনার ইচ্ছা বা পছন্দ অনুযায়ী কাস্টমার কেয়ারের সাথে আপনার পিন ভুলে যাওয়ার ব্যাপারটা বলতে পারেন। এতে কোন সমস্যা নেই। অফিসের লোকজন আপনাকে অবশ্যই সাহায্য করবে।

আপনি যদি এমন কেউ হয়ে থাকেন, যে নগদ একাউন্ট হেল্পলাইন নাম্বার বা কাস্টমার কেয়ারের নাম্বার জানেন না, তাহলে হেল্পলাইন নাম্বার বা কাস্টমার কেয়ার থেকে জেনে নিন।

একাউন্টের সঠিক ইনফরমেশন প্রদান করণ

একটা জিনিস ভাবুন, আপনার একাউন্টের পিন নাম্বার পরিবর্তনের জন্য যে কেউ যদি আবেদন করতে পারে তাহলে ব্যাপারটা কেমন হয়? আর এ কারণেই নগদ কর্তৃপক্ষ এক্ষেত্রে কিছু বাধ্যবাধকতা রেখেছে। আর্থাৎ একাউন্টের অর্জিনাল গ্রাহক তার সঠিক ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করলে কাস্টমার কেয়ার গ্রাহকের একাউন্ট টির পিন রিসেট করে দিবে।

এখন যদি আপনি এগুলো শোনে টেনশনে পড়ে যান, তাহলে আপনাকে বলি , টেনশনের কিছু নেই। ‍তারা আপনাকে বেশি কিছু জিজ্ঞেস করবে না। জাস্ট আপনার নাম, জন্ম তারিখ, বাবার নাম, মাতার নাম, থানা, জেলা ও ঠিকানা।

এরপর আপনার নগদ একাউন্ট দিয়ে সর্বশেষ লেনদেনকৃত টাকার পরিমাণ তারা জানতে চাইবে। এক্ষেত্রে ভুলে গেলেও সমস্যা নেই। আপনি আপনার পুরোনো মেসেজ থেকে দেখে নিতে পারেন আপনার সর্বশেষ লেনদেনের পরিমাণ।

তবে এই ক্ষেত্রে একটি জিনিসি অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে, উক্ত তথ্যগুলো মাস্ট আপনার NID কার্ডের সাথে মিল থাকতে হবে এবং কোনো রকম যদি তথ্যের ঘাটতি থাকে তাহলে কাস্টমার কেয়ার আপনাকে সঠিক বলে গণ্য করবে না এবং পিন রিসেট দিয়ে দিবে না। তাই অবশ্যই সঠিক তথ্য প্রদান করতে হবে।

কোনো নগদ গ্রাহক যদি NID কার্ডের পরিবর্তে অন্য কোনো ডকুমেন্ট দিয়ে একাউন্ট খুলে থাকে, তাহলে সেক্ষেত্রে তাকে সেই ডকুমেন্টের সকল তথ্য দিতে হবে। কোনো রকম ভুল দেওয়া যাবে না।

যদি NID বা অন্য ডকুমেন্টের তথ্য আপনি মনে না রাখতে পারেন তাহলে আপনি চাইলে সমস্ত তথ্য সামনে রেখে নগদ হেল্পলাইন নাম্বারে বা কাস্টমার কেয়ারে ফোন দিতে পারেন।

Read More  নগদ একাউন্ট দেখার ‍নিয়ম ও হেল্পলাইন নাম্বার ২০২১

নগদ একাউন্টের নতুন পিন নাম্বার সেটাপ করুণ

যখনই আপনি তাদের চাহিদার বা জানতে চাওয়া সকল তথ্য প্রদান করবেন, ঠিক তখনই নগদ অফিস থেকে আপনার মোবাইল নাম্বারে ৬ সংখ্যার একটি গোপন টোকেন বা কোড সেন্ড করবে । এই কোডটির মাধ্যমে গ্রাহক পুনরায় তার একাউন্টের পিন রিসেট করতে পারবে এবং একাউন্টে এক্সেস পাবে। সেন্ডকৃত কোডের বা টোকেনের মাধ্যমে যেভাবে আপনি আপনার পুরাতন ভুলে যাওয়া পিন থেকে নতুন পিন পাবেন, তার একটি নমুনা নিম্নে দেওয়া হলো.

  • মোবাইলে সেন্ডকৃত কোড বা টোকেনের ৬ সংখ্যার নাম্বারটি কপি করুন অথবা মনে রাখুন
  • এবার মোবাইলের ডায়াল সেকশানে গিয়ে *167# ডায়াল করুণ
  • এখন দেখুন Enter new pin number লেখা উঠেছে, এখানে আপনার সেই সেন্ডকৃত গোপন কোড বা টোকেনটি বসান এবং ওকে করুন
  • এখন দেখুন আবার সেইম অপশান এসেছে অর্থাৎ আবার পিন দেতে বলতেছে। এটা হলো আপনার নতুন পিন নাম্বার দেওয়া সেকশান। এখানে আপনি নতুন করে যে ৪ সংখ্যার পিনটি দিতে চাচ্ছেন সেটি দিন এবং ওকে করুন
  • এবার আবার পিনটি দিন কনফার্ম করার জন্য এবং ওকে করুন

ব্যাস, হয়ে গেল নতুন পিন নাম্বার সেট এবং পুরাতন পিন নাম্বার রিসেট। এভাবেই একজন নগদ গ্রাহক খুব সহজেই ভুলে যাওয়া পিন নাম্বার খুব সহজে উদ্ধার বা পিরে পাবে।

নগদ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে করণীয় সম্পর্কে জানতে

Leave a Comment